Saturday

এই কোরবানী পাপে বিচ্ছিন্ন মানুষকে আল্লাহর সাথে পুর্নমিলন ঘটাবে!!!



আল্লাহ! কতই মহান-ক্ষমতাবান, সব কিছুর উপরে মহিমাময়! বেহেশত তার মহত্ব ও আসমান তার আশ্চার্য নৈপুর্ন ঘোষনা করে! দিনের পর দিন এবং রাতের পর রাত তারা তাকে প্রকাশ করে....


আল্লাহ আসমান ও দুনিয়া সৃষ্টি করলেন এবং ভুমির ধুলি থেকে মানুষ সৃষ্টি করলেন ও তার নাকে ফু’ দিয়ে জীবন দিলেন।
প্রেমময় আল্লাহ নিজ সুরতে পুরুষ ও স্ত্রী সৃষ্টি করলেন যেন তার সাথে সম্পর্ক থাকে। শুরুতেই তারা তাকে সম্মান জানাল এবং তার সাথে বাস করতে লাগল।


একদিন শয়তান ওই স্ত্রীকে লোভ দেখাল যেন নিষিদ্ধ ফল খায় এবং স্বামীকেও দেয়। ফলে মানুষ আল্লাহর অবাধ্য হল। এই পাপের ফলে মানুষ আল্লাহ থেকে বিছিন্ন হল এবং এদোন বাগান থেকে বের করে দিল। তবুও আল্লাহ মানুষকে ভালবাসলেন। তিনি তার সৃষ্টি থেকে আলাদা থাকতে চান নি। আল্লাহ পাপের বিচার না করলে কি করে তিনি পবিত্র ও ন্যায় বিচারক?



তাই আল্লাহ মানুষকে বাচাতে কিতাবে তার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। এই পরিকল্পনাটি হযরত ইব্রাহিম (আ.) প্রথম জেনেছিলেন। হযরত ইব্রাহিম (আ.) ধার্মিক ছিলেন তাই আল্লাহ তার বংশকে সমুদ্রের বালু ও আকাশের তারার মত অগনিত করার ওয়াদা করলেন।
হযরত ইব্রাহিমের ঈমান পরীক্ষার জন্য আল্লাহ তার প্রিয় পুত্রকে কোরবানী দিতে বললেন।
আল্লাহকে বিশ্বাস করায় তিনি তার বাধ্য হলেন। পুত্রকে কোরবানী দিতে ছোরা তুলতেই ফেরেশতা তাকে থামালেন, দেখলেন ইব্রাহিম আল্লাহর বাধ্য এবং তাকে ভয় পান।


ইব্রাহিম ঝোপের মধ্যে শিং আটকে যাওয়া একটা ভেড়া দেখলেন এবং ছেলের বদলে ওই ভেড়াকে কোরবানী দিলেন।


আল্লাহ ইব্রাহিমকে দেখালেন যতদিন মানুষের পাপ তাদের ক্ষমার জন্য চুড়ান্ত কোরবানী না হয় ততদিন ভেড়া বা কোন পশু মানুষের পাপের সাদকা হিসেবে কোরবানী করা হবে।


এই কোরবানী পাপে বিচ্ছিন্ন মানুষকে আল্লাহর সাথে পুর্নমিলন ঘটাবে!!!

-------------------------------------------------------------------------------

শিশুর জন্য ভালবাসা কর কি তোমরা অনুভব?
চাই বাধা বন্ধন মুক্ত আনন্দময় শৈশব।
আমরা ভালবাসা দিয়ে পৃথিবী রাঙ্গাব সকল শিশুর জন্য,
একটি শিশুর জীবন মোরা হতে দেব না বিপন্ন.........