কোহেকাফ নগরঃ টু দ্যা অডাসিটি (২৯ - ৩১)


২৯: 
আইভি এম্পায়ারের সম্রাট হিজ হোলিনেস মো এন দি লা একটি ইম্পেরিয়াল প্রজ্ঞাপন জারী করলেন যা সম্রাটের ডিক্রি হিসেবে পুরো এম্পায়ারের প্রতিটি গ্রহ,উপগ্রহ,গহানুপুঞ্জ এবং কৃষ্ন গহব্বর ও নেবুলা টেরিটরিগুলো পাঠিয়ে দেয়া হলো। গ্যালাকটিক এম্পায়ার আইভিএর সম্রাট পবিত্র ও বিশুদ্ধ জাইন হিসেবে সবার কাছে গ্রহনযোগ্য।
ইম্পেরিয়াল ডিক্রিতে বলা হলো এম্পায়ারের নতুন রাজধানী আনতা হবা তামা লু প্লানেট সিটিএর কথা। ডিক্রিতে উল্লেখ করা হলো পুনঃগঠিত সরকার ও ইম্পেরিয়াল ক্যাবিনেটের কথা। নতুন ইম্পেরিয়াল মন্ত্রীপরিষদে সম্রাট মো এন দি লা চৌদ্দ হাজার মন্ত্রী নিয়োগ দিয়েছেন, যাদের বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সম্রাট মো অতি বিচক্ষনতা ও বহুল প্রজ্ঞার পরিচয় দিয়েছেন - যা জাইন জাতি কখনোই ভুলবে না এবং চিরকাল অনুকরনীয় ও ইতিহাস হয়ে থাকবে।
সম্রাট মো এন দি লা ডিক্রিতে তুলে ধরলেন তার ইম্পেরিয়াল ক্যাবিনেট মেম্বারদের কথাঃ আমার এই ইম্পেরিয়াল ক্যাবিনেট গভীর রাত্রির আকাশে দৃশ্যমান নক্ষত্রপুঞ্জের ন্যায়। তাদের যোগ্যতার ব্যাপারে কেউ প্রশ্ন করবেন না। হতাশা যদি দড়জায় কষাঘাত করে, মহাশুন্যের অনন্ত পথে যে কোন কাজে বা মিশনে পথহারা হয়ে পড়লে, যদি আধার নেমে আসে তবে অন্তত আমার যে কোন একজন ক্যাবিনেট মেম্বারের জীবন কার্যক্রম অনুসরন
, আপনারা সঠিক পথের নির্দেশনা পেয়ে যাবেন।
অতঃপর সম্রাট তার কেন্দ্রিয় প্রকাশনা বিভাগকে নির্দেশ দিলেন তার চৌদ্দ হাজার ক্যাবিনেট সদস্যদের জীবনীর আদ্যপান্ত প্রকাশ করে এম্পায়ারের সবর্ত্র প্রেরন করতে।
চৌদ্দ হাজার মন্ত্রীদের কতজন সম্রাটের সাথে সরাসরি সাক্ষাতলাভ এবং একসাথে কাজ করার সুযোগ পায়?
প্রতিদিন কোন না কোন গ্রহ, বা ফেডারেশন,ইউনিয়ন,রিপাবলিক,কিংডমের শাসকরা তার সাক্ষাত প্রার্থী থাকে কিংবা কোন এডমিরাল বা দুরদুরান্ত গ্রহে দায়িত্বরত জেনারেল। মন্ত্রীদের তিনি সময় দিতে পারেন খুব কম। তদপুরি আছে পরিবার ও বন্ধুরা, যাদের কোন অবস্থাতেই উপেক্ষা করতে পারেন না তিনি।
সম্রাট ভাবছেন আনতা হবা তামা লুএর কথা। তাকে কি তিনি তার পরিবারের একজন করে নিবেন! পালিত কন্যা নাকি সায়নীর মর্যাদা দিবেন কিংবা দুঃসর্ম্পকের কোন আত্মীয়ের মর্যাদা দিবেন?

সায়ার! আনতা হবা তামা লু বলছিলঃ সায়ার, আমার একটি আর্জি আছে। রাখশ কিনাল, সে আপনার নবগঠিত মন্ত্রীপরিষদে হাইপার ড্রাইভ বিষয়ক মন্ত্রী হতে যাচ্ছে। আমি চাই না সে আবারও মন্ত্রী হয়ে ক্যাবিনেটে আসুক।
সম্রাট বিস্ময়কর দৃষ্টিতে আনতা হবা তামা লু এর দিকে তাকালেনঃ আনতা হবা তামা লু! রাখশ কিনাল আমার কমনওয়েলথ মিনিস্টার,তাছাড়া ইম্পেরিয়াল ডিক্রি অপরিবর্তনীয়।
আনতা বললঃ সায়ার,আপনী দেখবেন - সে যেন মন্ত্রী হতে না পারে, প্লীজ। 

৩০: 
মহাজাগতিক ধুলিকনা,পাথর,গ্যাস ও অন্যন্য ভাসমান উপাদানের এক ক্লাউড জায়ান্ট রাইবা পর্বতমালা - যা দামোদার নেবুলার অংশ বিশেষ। একঝাক সহকর্মী নিয়ে ক্লাউড জায়ান্টের অভ্যন্তর হতে বেরিয়ে মহাশুন্যে উড়ে চললো রাখশ কিনাল। কিনালের স্টাফ অফিসার ক্যামরেল ব্লাকার্দ বললোঃ কে এই আনতা হবা তামা লু, ইউর ম্যাজেট্রি?

রাখশ কিনাল।
মহান রাখশ বিরিয়ান আমার কিনাল।
আইভি এম্পায়ারে তিনি বহুবার গুরুত্বপুর্ন পদে দায়িত্বরত ছিলেন। ইম্পেরিয়াল নেভিতে এডমিরাল থাকাকালীন সময়ে এম্পায়ারের বিভিন্ন অংশের শাসকরা তাকে চারবার ফ্লিট এডমিরাল এবং দুইবার হাই এডমিরাল পদবীতে সম্মানিত করেছিল। কিনালের জম্ন হয়েছিল জিন্নায় কমনওয়েলথে। পরবর্তীতে তিনি ছিলেন দামোদার নেবুলা সরকারের এক স্পেস স্পাই এজেন্ট। জিন্নায় কমনওয়েলথ গঠিত হয়েছে মহাশুন্যের ষোল বিলিয়ন বর্গ পারসেক আয়তনের শুন্যস্থান নিয়ে। এখানে কোন নক্ষত্র বা কোন মহাজাগতিক উপাদান নেই। শুধুই শুন্যস্থান। জিন্নায় কম হচ্ছে স্বাধীন একটি সরকার ব্যবস্থা ও সীমারেখা এবং আইভি এম্পায়ার থেকে মুক্ত। তবে একে অপরের এসোসিয়েট পাওয়ার হিসেবে কাজ করে থাকে।
পাচ হাজার বছরের অভিজ্ঞ জাইন রাখশ কিনাল আইভি এম্পায়ারের অধীনে এগারো লক্ষ নক্ষত্র ও তাদের গ্রহ-উপগ্রহ নিয়ে গঠিত একটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন একদা। 
এই রাখশকে অপসারন করতে হবে?

সম্রাট মো এন দি লা এম্পায়ার মধ্যে কাছে ও দুর দুরান্তে ছড়িয়ে থাকা দশজন জাইন জেনারেল, এডমিরাল, মার্শাল, কর্পোরাল ও মহাকাশ নাবিকদের ডাকলেন। দশজন জাইন আত্মীয় ও বন্ধু। দশজন জাইন শাসক। দুজন সম্রাটের সেচ্ছাসেবক। এবং এমনকি এক হাজার বছরের সাজাপ্রাপ্ত একজন জাইন কয়েদিকেও তিনি তার অবকাশ যাপন উপগ্রহে ডেকে পাঠালেন।
সবার সাথে পরামর্শ করলেন সম্রাট।
একজন বললোঃ সায়ার, যে কোন সিদ্ধান্ত নেবার ক্ষেত্রে আপনী আপনার এসোসিয়েটরদের থেকে মুক্ত।
কিন্তু সম্রাট মো এন দি লা!
তিনি উপযুক্ত একটি সিদ্ধান্ত নিতে চান। কে তাকে একটু সহযোগিতা করবে - তাকে তার মত করে বুঝতে পারবে?
সম্রাটের মনে পড়ল তার ছোটবেলার বন্ধু বিরাক বেথের কথা। আজ যদি সে সেই শৈশব-কৈশরের দিনগুলির মত পাশে থাকতো!
কিন্তু বিরাক বেথ একখন আলফা অডাসিটির মহাপরাক্রমশীল অডিটর - অডিটর বিরাক বেথ। পুরো জাইন সভ্যতায় তার চেয়ে সম্মানিত ও ক্ষমতাবান কেউ নেই - কোহেকাফ নগর তথা অডাসিটির অডিটর তার বন্ধু বিরাক বেথ। সম্রাট জানে তার সাক্ষাত পাওয়া দুর্লভ আর দেখা পেলেই তিনি বন্ধুর মত কথা বলবেন কিনা সম্রাট জানেন না। 

৩১: 
এদিকে সম্রাট মো এন দি লা যখন তার বন্ধু অডিটর বিরাক বেথের সাথে সাক্ষাত পেতে যোগাযোগ করছেন তখন আইভি এম্পায়ারের চল্লিশ,আশি এবং বিশ ডিগ্রি এক্স,ওয়াই এবং জেড অক্ষে অবস্থিত নীল ক্যাপিটাল প্লানেটের জাসম্যান কিংডমে ঘটে গেল অপ্রত্যাশিত একটি ঘটনা। বহিঃজাগতিক কিছু সেন্টিয়েন্টদের হামলায় রাজা বিবান্ধ মুয়াবা প্রথম নিহত হয়েছেন।
চিফ মার্শাল জানালোঃ সায়ার, রাজা বিবান্ধ নিহত হয়েছেন এক ইন্টার গ্যালাকটিক যুদ্ধে। এটা ছিল রোবট নামে একটি আল্ট্রা সুপার সেন্টিয়েন্ট সম্প্রদায়ের হামলা। কয়েক বিলিয়ন বছর আগে মানুষজাতিরা এই রোবট বা কৃত্রিম যন্ত্রমানবদের তৈরি করেছিল।
এম্পায়ারে সম্রাটের কাছের ও বিশ্বস্ত বন্ধু রাজা বিবান্ধ।
তখন নীল গ্রহে রাত নেমে এসেছে। সন্ধ্যের কিছু পুর্বেই রাজা বিবান্ধ মারা গেছেন। সম্রাট মো তার নিরাপত্তা রক্ষী জাইন কমান্ডারকে নিয়ে রাজা বিবান্ধের প্রাসাদে আসলেন। গ্রহের সর্বত্র শোকের বার্তা। কারন তিনি খুব জনপ্রিয় শাসক ছিলেন।
সম্রাট মো এন যখন রাজা বিবান্ধের প্রাসাদে আসলেন তখন অগনিত জাইনরা তার পাশে জড়ো হয়ে শোকের মাতম তুলল।

অনন্ত মহাকাশে আনতা হবা তামা লু তার ডানা দুটি মেলে দিল। ছত্রিশ হাজার আলোকবর্ষ পথ পাড়ি দিয়ে দামোদার নেবুলার পাশে একটি কৃষ্ন গহ্বরের পাশে এসে দাড়ালো। সে জানে কিভাবে রাজা বিবান্ধকে জীবিত করে তোলা যাবে।
আনতা হবা বিশেষ তরঙ্গের এক প্রকার শব্দ তৈরি করে কৃষ্ন গহ্বরে প্রেরন করতে লাগলো। সেটা প্রতিফলিত হয়ে এক প্রকার করুন সুরের ন্যায় রুপ নিয়ে ফিরে এসে পুরো মহাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়লো। গভীর রাত,বা কোন বিকেল অথবা মধ্য দুপুরে সেই করুন সুর পৃথিবী ও মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির মানুষেরাও শুনতে পেল। অনেকে অবাক হয়ে প্রশ্ন করলো কে এমন করুন সুরে বাশি বাজাচ্ছে? সবার মন অস্থির হয়ে উঠলো। বাসা,অফিস,সকল ব্যস্ত ও অবসর সময় পাশ কাটিয়ে তারা সেই করুন সুরের উতস জানতে চেষ্টা করলো। কিন্তু তাদের কখনোই জানা হয় নি কে সেই করুন সুরের বাশি বাজিয়েছিল।

যাইহোক, আনতা হবা তামা লুএর সেই করুন সুর রাজা বিবান্ধের আত্মাকে মহাশুন্যের সর্বত্র খুজতে লাগলো। এভাবে করুন সুরে উতালা হয়ে নীল প্লানেটের রাত্রির শেষভাগে রাজা বিবান্ধের প্রান তার জাইন শরীরে ফিরে আসলো। রাজা বিবান্ধ উঠে দাড়িয়ে সম্রাট মো এন দি লার সাথে মোলকাত করলেনঃ সায়ার...
সম্রাট বাধা দিলেনঃ সায়ার নয়। বন্ধু। নাম ধরেও ডাকতে পারো, মো এন দি লা।
রাজা বিবান্ধ বললোঃ আমি তোমার কাছে কৃতজ্ঞ বন্ধু।
সম্রাট বললেনঃ আমি নই রাজা বিবান্ধ, আনতা হবা তামা লু তোমাকে পুর্নজীবন দিয়েছে। আমি তাকে চিফ ইম্পেরিয়াল চিকিতসকের দায়িত্ব দিতে চাই। আর সে তোমারও যোগ্য হবে, দেখা যাক সে কি বলে।
রাত পোহালো। জাসম্যান কিংডমের সর্বত্র সংবাদ পৌছালো রাজা মারা যান নি। 

{চলবে} ……… 

“কোহেকাফ নগর ডিভাইন এলায়েন্স সিরিজ” লেখকঃ ড. রাইখ হাতাশি।
“AudaCity Divine Alliance Series” by Dr. Raych Hatashe

Comments