300x250 AD TOP

Blog Archive

Powered by Blogger.

Monday

Tagged under: , , ,

কোহেকাফ নগরঃ টু দ্যা কমনওয়েলথ (১০ – ১১)


১০:
ড. ইসরা কমনওয়েলথের গেষ্ট হাউজে চলে যাবার পরে লর্ড আসিমো ক্রিমিয়ার সার্কিটময় উদ্যানে হাটতে বের হলেন।
একটি স্ক্রিনের পাশের স্পিকার থেকে নোভি নীলের কন্ঠস্বর ভেসে এলো; আসিমো, লর্ড! আমি আপনাকে অনুভব করছি। আপনার মানসিক অনুভুতি অনেক খারাপ।
-তুমি আমার অনুভুতি বুঝতে পারো নোভী নীল? আসিমো প্রশ্ন করলো।
-কেন নয় আসিমো? আমরা তো একই অনুভুতি এবং চেতনায় আবদ্ধ ছিলাম একদা, এখনো আছি।
আসিমো আক্ষেপ করলো; কিন্তু তোমাকে আমার খুব প্রয়োজন নোভী। তুমি আর কতদিন বাক্য হয়ে, শব্দমালা হয়ে কিংবা এমন চেতনার অনুভুতি হয়ে এভাবে বন্দী হয়ে থাকবে?
নোভী বলল; আপনী কমনওয়েলথের বিজ্ঞানী ও গবেষকদের বলুন, মাই লর্ড।
-আমি বলেছি নোভী। তারা দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে কিন্তু এখনো কোনো সুখবর আমাকে দিতে পারে নি।
-তাহলে আমরা এভাবেই আজীবন কাটিয়ে দেব আসিমো।
-আমার এখন জেনারেল বিল সাফক্'কে খুব দরকার। তিনি পারবেন।
নোভি খুব অবাক হয়ে বললো; জেনারেল বিল সাফক্! আপনী আমাকে তার কথা আমাকে অনেকবার বলেছিলেন।
জেনারেল বিল সাফক্! তিনি ছিলেন লস্ট প্লানেট আর্থ আল্টান্টিস আর্মির চিফ অফ স্টাফ এবং গ্যালাকটিক নেভীর মার্স সামিটের ফ্লিট কমান্ডার, সেই সুত্রে তিনি ফ্লিট এডমিরাল পদবী ধারন করেছিলেন।

১১:
জেনারেল বিল সাফক্ যখন লস্ট প্লানেট আর্থ আল্টান্টিস আর্মির চিফ অফ স্টাফ হিসেবে যোগদান করেন তখন রোবট আসিমোকে তার কাছে শিক্ষানবিস হিসেবে পাঠানো হয়েছিলো।
এটা ছিলো মহান বিজ্ঞানী হো মিন দ্যা এর মৃত্যুর অনেক অনেক পরে। যেহেতু আসিমো একটি মিলিটারী প্রজেক্টে গবেষনার আওতায় অনেকটা হয়রানী ও একপ্রকার নির্যাতনের শিকার হয়েছিলো, তাই পরবর্তীতে সরকারের কেবিনেটে এই প্রজেক্ট বন্ধ করে তাকে সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে অভ্যস্থ করতে বিজ্ঞানী হো মিন ব্যপক জনমত সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছিলেন ফলশ্রুতিতে সরকার মিলিটারী ডিভিশন এবং দাতা সংস্থা ও গবেষকদের উপরে অনেক চাপ সৃষ্টি করে। প্রজেক্টের শেষ পর্যায়ের সময় তখন- আর্থ আল্টান্টিস আর্মির একজন জেনারেল অফিসার আটানব্বই অভিয়েশন ইনফ্র্যান্টি ডিভিশনের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেনেন্ট জেনারেল বিল সাফক্ তার বাতসরিক দুই মাস ছুটি কালীন সময়ে একজন বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক ও গবেষক পরিচয়ে ঐ প্রজেক্ট যোগ দিয়ে গবেষনার প্রাইম অবজেক্ট রোবট আসিমোকে পর্যালোচনা করতে সমর্থ হন। এবং অলিখিত ও আনঅফিসিয়ালি আসিমোর দায়িত্ব তার হাতে এসে পড়ে। ইতিমধ্যে বিজ্ঞানী হো মিন মারা যান। জেনারেলের ছুটি শেষ হলে তিনি সম্রাটের কাছে গিয়ে সব খুলে বলেন এবং সম্রাট তাকে আর্মির চিফ অফ স্টাফ হিসেবে নিয়োগ পেতে সাহায্য ও সুপারিশ করেন।

{চলবে} ......... 

“কোহেকাফ নগর ডিভাইন এলায়েন্স সিরিজ” লেখকঃ ড. রাইখ হাতাশি।
“AudaCity Divine Alliance Series” by Dr. Raych Hatashe

0 Comments: