Sunday

কোহেকাফ নগরঃ স্বপ্নবিশ্ব (১১ - ১২)


১১: 
স্বপ্নবিশ্বের অতি প্রাকৃতিক একটি মরভুমি যেখানে বনভুমির উপস্থিতিও আছে যার নাম প্যানারোমা। এই অঞ্চল জঙ্গল নয় তবে মরুভুমিতে স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক পরিমান গাছপালা রয়েছে এবং কিছু দুরে দুরে মাইক্রো ফরেস্টের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। প্যানারোমার আয়তন প্রায় সমগ্র স্বপ্নবিশ্বের তিনভাগের দুই ভাগ। স্বাপ্নিকদের জীবনে প্যানারোমা অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ। প্যানারোমাকে বাদ দিয়ে ড্রিম ইউনিভার্সের অস্তিত্ব নয়। প্রকৃতপক্ষে স্বপ্নবিশ্ব কতবড় সঠিক পরিসীমা অজানা তবে যতটুকু পর্যন্ত স্বাপ্নিকদের যাতায়াত এবং আবিস্কৃত সেই বিচারে প্যানারোমা এর তিনভাগের দুইভাগ জুড়ে আছে বলে এমনটাই মেনে নেওয়া হয়েছে। এখানে অবশ্য কোন সভ্যতার উপস্থিতি নেই তবে মাঝে মাঝে স্বাপ্নিকদের উপস্থিতি ঘটে থাকে। জিনা আগামী এক যুগ এখানে কাটাবে এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তার মেন্টাল ফোর্সের উপরে আরো চর্চা করা প্রয়োজন আর এজন্য এমন অতি প্রাকৃতিক পরিবেশ বেশ প্রয়োজনীয়। জিনা বুঝতে পারছে সাইকোহিস্ট্রির ইউনাইটেড স্টেটস কার্যক্রমের সাথে সাময়িকভাবে যুক্ত হয়ে সে শাররীক ও মানসিকভাবে অনেক দুর্বল হয়ে পড়েছে। সাইকোহিস্ট্রি স্টেটস ফেডারেশন কেমন যেন সম্মোহনীয় আর শাররীক ও মানসিক সমস্ত ক্ষমতাকে নিস্তেজ করে দেয়। জিনা এর ভয়াবহ অভিজ্ঞতার শিকার। কিন্তু সে একা কিভাবে প্যানারোমায়  থাকবে? 

১২: 
জিনা যখন প্যানারোমায় এসে পৌছুলো তখন প্রায় সন্ধ্যে ঘনিয়ে এসে আলো আধারির খেলা শুরু হয়েছে। প্যানারোমার কিছু অঞ্চলে অবশ্য মাত্র কয়েক ঘন্টা অন্ধকার বিরাজ করে। প্যানারোমায় প্রাকৃতিক আলোর উত্স সাতটি নক্ষত্র। দুটি নক্ষত্রের জম্ন হয়েছে কয়েক হাজার বছর আগে। দুটি নক্ষত্র মৃত প্রায় যা ব্লাকহোল তৈরী হবার পথে। আর তিনটি নক্ষত্র কমবেশী সমবয়সী এবং পরিপুর্ন সক্রিয় এবং একেবারে যুবক নক্ষত্র। জিনা একটি মাইক্রো ফরেস্ট বেছে নিলো যার চারপাশে বালু ও পাথরের মরুভুমি এবং কাছাকাছি কোন বনভুমি নেই। এই মাইকোফরেস্টের ভিতরে আছে একশত কিলোমিটার দৈঘ্যের একটি নদী ছোটবড় কিছু খাল ও চ্যানেল, ছোটবড় চল্লিশটি পাহাড়, জলপ্রপাত এবং বেশবড় একটি হ্রদ। প্যানারোমায় এসেই জিনা প্রথমে এই মাইক্রো ফরেস্টটির উপরে একটি সার্ভে করলো প্রায় মধ্যরাত পর্যন্ত। জিনা দেখলো এই মাইক্রোফরেস্ট আঠারো হাজার প্রজাতির জীববৈচিত্রের উপস্থিতি রয়েছে। শেষ রাত পর্যন্ত জিনা তার মেন্টাল ফোর্সকে প্রস্তুত করে নিলো কারন সকালের প্রথম প্রহরেই জিনা এই মাইক্রোফরেস্টের উপরে প্যানারোমায় তার প্রথম সাইকোহিস্ট্রিক্যাল এটার্ক করবে। খুব সকালে নক্ষত্রগুলি একে একে প্যানারোমার আকাশে বিভিন্ন অবস্থানে উঠে আসছিলো এবং একধরনের স্নিগ্ধ আলো ফুটে উঠছিলো। নিশাচর প্রানীরা ঢেরায় ফিরছিলো আর অন্য জেগে উঠছিলো। 
জিনা তার মাইন্ডের উপরে খুব জোর প্রয়োগ করলো। এটা সাইকোহিস্ট্রির ভিন্ন একটা কৌশল, এটা সে শিখেছে সাইকোহিস্ট্রি স্টেটস ফেডারেশনের লর্ড ডন আইজ্যাকের কাছে। জিনার মাইন্ড ফোর্স ঘনীভুত হয়ে স্থিতিস্থাপকের মতো পুরো মাইক্রোফরেস্টে ছড়িয়ে পড়লো, প্যানারোমার এই অংশের আকাশ ধুসর রংয়ে ঢেকে গেলো। বনভুমির সমস্ত জীবজন্তু ছোটাছুটি ও চিত্কার চেচামেছি শুরু করে দিলো। তারা কেউই মাইক্রো ফরেস্ট থেকে বের হতে পারলো না কারন চারপাশে ঘিরে রেখেছে জিনার মেন্টাল ফোর্স। মাইক্রোফরেস্টে তীব্রবেগে হাওয়া বইতে লাগলো এবং পাহাড়গুলি ফেটে গেলো এবং পানির ঝর্নাধারা বন্ধ হলো। পাহাড় ও মাটির গভীরের সমস্ত সুপ্ত আগ্নেয়গিরি একসাথে জেগে উঠলো আর মুহুর্তেই পুরো মাইক্রো ফরেস্ট দাবানল শুরু হয়ে গেলো। নদী, খাল, চ্যানেল, হ্রদ আর সমস্ত পানি শুকিয়ে গেলো। পাহাড়গুলি চুরমার হয়ে ভুমির সাথে মিশে গেলো। সন্ধ্যের কিছুক্ষন আগে ধ্বংস যজ্ঞ শেষ হলে। আর তখন আকাশ থেকে তীব্র বেগে বৃষ্টি নামতে শুরু করলো। জিনা দেখলো এই বৃষ্টির পানিগুলি নীল রংয়ের। নীল বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে জিনা মাইক্রো ফরেস্টের ধ্বংসস্তুপের মধ্যে দিয়ে উড়ে চললো। হঠাত করে জিনা দেখতে পেল নীচের বনভুতি একটি কিশোর দাড়িয়ে আছে। তার শরীর বৃষ্টির পানিতে ভিজছে আর সে যেন জিনাকে দেখতে পেয়ে সুউচ্চে দৃষ্টি আকর্ষন করতে চেষ্টা করছে। 

{চলবে} .........

“কোহেকাফ নগর ডিভাইন এলায়েন্স সিরিজ” লেখকঃ ড. রাইখ হাতাশি। 
“AudaCity Divine Alliance Series” by Dr. Raych Hatashe 
Share:

0 comments: